ঢাকাশনিবার , ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১
২৫শে মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৮ই ফেব্রুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ বুধবার
আজকের সর্বশেষ সবখবর

টাঙ্গাইলের বাসাইলে দু-ফসলি জমির মাটি কেটে নিচ্ছে কিছু প্রতাপশালী লোকজন

টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি
ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২১ ৬:১৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

টাঙ্গাইল সদর’সহ কয়েকটি উপজেলায় ফসলি জমির উপরিভাগের মাটি বিক্রির হিড়িক পড়েছে। এর মধ্যে উল্লখযোগ্য টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার দো-ফসলি জমি। আবার টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার বিভিন্ন স্থানে এবং কাশিল ইউনিয়ন সহ বিভিন্ন স্থানে ফসলী জমির উর্বর মাটি গিলে খাচ্ছে স্থানীয় ইটভাটাগুলো।

এতে করে দিন দিন কমে যাচ্ছে আবাদি জমির পরিমান। ব্যাহত হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য। উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে আবাদি জমিতে ভেকু বসিয়ে মাটি কেটে নিচ্ছে ইটভাটাগুলোতে এবং বসতবাড়ি ভরাট করে নিচ্ছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা। মাটি ভর্তি ট্রাক এবং ট্রাফি অবাধ চলাচলের কারণে একদিকে নষ্ট হচ্ছে গ্রামীণ সড়ক। অপরদিকে ধুলোবালিতে পরিবেশ বিপর্যস্ত হয়ে সাধারণ মানুষ শ্বাসকষ্ট সহ নানাবিধ জটিল রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

প্রশাসনের সময়োপযোগী তদারকি না থাকায় বেপরোয়া হয়ে পড়ছে এসব মাটি ব্যবসায়িরা। বাসাইল উপজেলার কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা।

অর্ধশতাধিক মাটি ব্যবসায়ী উপজেলার বিভিন্ন দো-ফসলি জমিতে অবৈধ ভাবে বেকু বসিয়ে দেদারছে মাটি সরবরাহ করছে ইটভাটায়। ফলে প্রতিনিয়ত আবাদি জমির পরিমান কমে যাচ্ছে, ভারসাম্য হারাচ্ছে পরিবেশ। মাটি ব্যবসায়িরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়না বলে জানা যায়।

প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক এক ব্যক্তি জানান, দো-ফসলি জমির মাটি কাটায় এবং গাড়ি চলাচলের কারণে রাস্তাঘাটে সঠিকভাবে চলাচল করতে পারিনা। নামাযের সময় মসজিদে মুসুল্লিদের যাতায়াতে বিঘ্ন ঘটায় এ মাটিবাহী গাড়ি।

স্থানীয় কিছু ব্যবসায়ী, দীর্ঘদিন যাবৎ এ মাটি ব্যবসায়ীরা মাটি কেটে ইটভাটাগুলোতে মাটি বিক্রি করে আসছে। এলাকায় কেউ প্রতিবাদ করলে তাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর হুমকি দেয়। এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক এর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকাবাসী।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।