ঢাকাসোমবার , ১৪ ডিসেম্বর ২০২০
১৬ই মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ৩০শে জানুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ সোমবার
আজকের সর্বশেষ সবখবর

টাঙ্গাইলে দুই শিশু হত্যা মামলায় ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ৬ জনের কারাদণ্ড

আবিদ আহমেদ বাঁধন, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি:
ডিসেম্বর ১৪, ২০২০ ৪:৫৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে চতুর্থ শ্রেণির ২ শিক্ষার্থী ইমরান ও শাকিলকে অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় ৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড, ৩ জনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড এবং ৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া প্রত্যোককে ১ লাখ টাকা করে জরিমানা করেছেন আদালত।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক সাউদ হাসান এই রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্তরা হলেন বাহাদুর মিয়া, মিল্টন, রনি মিয়া। আমৃত্যু কারাদণ্ড প্রাপ্তরা হলেন, আব্দুল মালেক, শাহিনুর, জহিরুল ইসলাম। যাবজ্জীবন প্রাপ্তরা হলেন, মো. শামিম, আরিফ জাকির হোসেন। রায়ের সময় ৮ আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। এ ঘটনায় ১ আসামি পলাতক রয়েছে।

এ হত্যা মামলার ৯ আসামির মধ্যে ৫ জন আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়। এ ঘটনায় ১৬ জন সাক্ষী দেয়। পুলিশ ৯ জনকে অভিযুক্ত করে ২০১৬ সালের ৮ জুন আদালতে চার্জশিট জমা দেয়।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২৭ জানুয়ারি বিকেল ৩টার দিকে মির্জাপুরের হাড়িয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখার জন্য শাকিল ও ইমরান বাড়ি থেকে বের হয়। পরে সন্ধ্যা পর্যন্ত বাড়িতে না আসায় তাদের খোঁজাখুঁজি শুরু করে পরিবারের লোকজন। পরদিন ২৮ জানুয়ারি মামলার বাদির মামা জোসনা বেগমের কাছে ফোন দিয়ে ১ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে ফোন বন্ধ করে রাখেন। পরবর্তীতে ২৯ জানুয়ারি বিকেল ৪টার দিকে গুমগ্রাম বাজারের লেবু ক্ষেত থেকে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। তাদের গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবাই করা হয়।

এ ঘটনায় নিহত শাকিলের মা বাদি হয়ে ২০১৬ সালের ৩০ জানুয়ারি অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অতিরিক্ত পিপি ও এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রফিকুল ইসলাম খান আলো।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।