শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬:৫৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
“গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ” বিশ্ব নেতৃবৃন্দের ছয় সদস্যের একজন শেখ হাসিনা। শার্শা সীমান্তের ইছামতি নদী থেকে অজ্ঞাত এক যুবকের লাশ উদ্ধার যশোরে চোরাই মোবাইলসহ গ্রেফতার ২ লক্ষীপুর মাতৃমঙ্গল হতে বের হয়ে রাস্তায় স্বাভাবিক প্রসবে সন্তান জন্ম “বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি” সোমবার দেশে আসছে বিশিষ্ট সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ। কান উৎসবে ‘মুজিব’ বায়োপিকের ট্রেলার উদ্বোধন রাতেও উড়ছে গলাচিপা ভূমি অফিসে জাতীয় পতাকা কুসিকে কাউন্সিলর পদে সাধারন আসনে ৯জনের এবং সংরক্ষিত আসনের ১ জনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষনা কারাতে মাস্টার সিহান মোখলেছুর রহমান আবু ওয়ার্ল্ড স্পোর্টস স্টার এ্যাওয়ার্ড ২০২২ মনোনীত

নরসিংদীর বেলাবতে মাঘের শেষেই দেখা মিলছে আমের মুকুল

আবু বকর ছিদ্দিক, বেলাব প্রতিনিধিঃ
  • সংবাদটি লিখা হয়েছে : রবিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ১৯৬ জন পড়েছে

মাঘ মাসের শেষ দিন আজ। ৩০ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (শনিবার) ফাল্গুনের শুরুটায় গাছে গাছে দেখা যায় নানান ফুলের সমাহার। গাছের শাখায় নতুন পত্র -কুড়ি নতুন ফুল। ফাল্গুন এলেই বাংলার পত্রহরিৎ অরণ্যে নতুন এ পত্র কুড়ি দেখা যায়। যা বাংলার প্রকৃতির এক অপরূপ চিত্র। নতুন ফুলে ফলে ভরে ওঠে গাছের শাখা। তাই মাঘের শেষের দিকেই গাছে গাছে ফুটে উঠেছে আমের মুকুল।

অপরূপ বাংলার গাছে গাছে আমের মুকুলের এ চিত্র এমন কোনো মানুষ নেই যার মন ভোলাই না। আম গাছের ছোট ছোট সবুজ পাতার মাঝে হলদেটে মুকুল ঝুরি যেন কনক প্রদীপ হয়ে আলোর বিচ্ছুরণ ঘটাচ্ছে। কিছুদিনের মধ্যেই মুকুল ঝুরি গুলো প্রস্ফুটিত হবে মুকুল মঞ্জুরীতে। আম গাছ গুলো সজ্জিত হবে সাদা বেগুনি ও হলদেটে ফুলের ফুলে পুষ্প রানী সাজে।গাছে গাছে মৌ মাছির গুঞ্জন আর মুকুলের মৌ মৌ গন্ধে কেড়ে নেই অনেক প্রকৃতিপ্রেমিক’এর মন।

মাঘের শেষ দিনে নরসিংদী জেলার বেলাব উপজেলা ঘুরে দেখা গেছে বিভিন্ন আম গাছে নতুন মুকুল এসেছে।গাছে গাছে আমের মুকুল দেখেই মনে পড়ে যায় ছোটবেলায় সুর করে পড়া ছড়া
আম পাতা জোড়া জোড়া, মারব চাবুক চড়বে ঘোরা।
আম ও আমের মুকুল বাংলার মানুষকে অদৃশ্য একটা আকর্ষণে কাছে টানে। যে কারণেই আমের মুকুল ও আম নিয়ে অনেক কবি লিখেছেন অনেক কবিতা ও তাদের কবিতায় স্থান পেয়েছে প্রকৃতির এ উপাদান টি।

বাংলাদেশ আম উৎপাদনে এখন অনেক এগিয়ে রয়েছে।২০১৮-১৯ অর্থবছরে হিসেবে অনুযায়ী বাংলাদেশ বিশ্বে আম উৎপাদনকারী শীর্ষ ১০ টি দেশের মধ্যে ৭ম স্থানে রয়েছে। বাংলাদেশে আম গাছ নেই এমন বসতবাড়ি খুবই কম আছে। বিশেষ করে নরসিংদী জেলার বেলাব উপজেলার এমন কোনো বাড়ি নেই যে আম গাছ নেই । বাড়ি বাড়ি আম গাছ থাকা সত্ত্বেও মানুষকে বাজার থেকে আম কিনে খেতে হয়।
কৃষিবিদদের মতে, আম গাছের একটু পরিচর্যা করলেই প্রতিবছর নিজ বাড়িতে উৎপাদিত আম দিয়ে পারিবারিক চাহিদা মিটিয়ে বিক্রি ও করা যাবে।

উপজেলা কৃষি অফিসার এর পরামর্শ অনুযায়ী আশ্বিন – কার্তিক মাসে গাছের গোড়ায় কিছু জৈব সার ও রাসায়নিক সার প্রয়োগ করলে গাছের উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। মুকুল ধরার পূর্বে গাছের ডালের আগাগুলো যখন মোটা হয় তখন, গাছে কীটনাশক প্রয়োগ করলে আম গাছের হপার পোকা ধ্বংস হয়। মুকুল ধরার পর মুকুল গুলি যখন প্রস্ফুটিত হয়, তখন কিছু হরমোন জাতীয় রাসায়নিক প্রয়োগ করলে ফলন বৃদ্ধি পাবে।মুকুল থেকে আম গুটি ধরলে তখন হালকা কীটনাশক স্প্রে করলে পোকার আক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসে যোগাযোগ করলে প্যাডেল চালিত সরকারি মেশিন দিয়ে বড় বড় আম গাছে স্প্রে করা যাবে। কৃষি অফিসারদের পরামর্শ অনুযায়ী নিজেরা-ও বাড়িতে আম গাছে হরমোন ও রাসায়নিক সার প্রয়োগ করতে পারবে। বেলাব উপজেলার প্রত্যেক বাড়ি থেকে একজন যদি আগ্রহ নিয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার এর সাথে যোগাযোগ করে, তাহলে তারা সঠিক পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করবে। তাদের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করলে প্রত্যেক বাড়িতে আমের চাহিদা মিটিয়েও বাজারে আম বিক্রয় করতে পারবে এবং আর্থিক ভাবে সফল হবে।

ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Agrajatra 24
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102