মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন

নাটোরে নির্বাচনী অফিসের নারী অফিস সহায়কের অশোভন আচরণের ভিডিও ভাইরাল-নিন্দার ঝড়

Coder Boss
  • সংবাদটি লিখা হয়েছে : বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৯ জন পড়েছে

মোস্তাফিজুর,স্টাফ রির্পোটার:

উৎকোচ না দেওয়ায় নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন অফিসারের সামনে একই অফিসের এক নারী অফিস সহায়ক (পিয়ন)জমেলা বেগমের হাতে লাঞ্চিত ও আশোভন আচরণের শিকার হয়েছেন বিপ্রবেল ঘড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহাজাহান আলী । এ ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় ঐ চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ।

ভিডিও ফুটেজ ও প্রত্যক্ষদর্শী গণমাধ্যম কর্মীদের সূত্রে জানা যায়,বুধবার সকালে নলডাঙ্গা উপজেলার ৫ নং বিপ্রবেলঘড়িয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজাহান আলী তাঁর কয়েকজন সমর্থককে নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিতে যান । এ সময় উপজেলা নির্বাচন অফিসের বিতর্কিত নারী অফিস সহায়ক (পিয়ন) জমেলা বেগম তাঁর হাত থেকে মনোনয়ন পত্র নিয়ে দুই হাজার টাকা দাবী করে । তিনি টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসারকে জানাতে গেলে জমেলা বেগম সেখানে প্রবেশ করে চেয়ারম্যান প্রার্থী ও তাঁর সমর্থকদের ধাক্কা দেয় এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। এক পর্যায়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসার আব্দুস সালামের সামনেই পিয়ন জবেদা বেগম জুতা খুলে মারতে উদ্দ্যত হয় এবং অশোভন আচরণ করেন । ঘটনার সময় স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা ভিডিওটি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দিলে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয় । উপজেলা জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহাজাহান আলী বলেন, গত ৫ ডিসেম্বর মনোনয়ন পত্র তোলার দিন পিয়ন জবেদা বেগম আমার কাছে উৎকোচ দাবী করে । আমি তাকে বুঝিয়ে মনোনয়নপত্র তুলে নিয়ে আসি । আজ মনোনয়ন জমা দিতে গেলে পূণরায় সে দুই হাজার টাকা ঘুষ দাবী করে । আমি দিতে অস্বীকৃতি জানালে সে নির্বাচন অফিসারের সামনেই আমাদের সাথে অশোভন আচরণ করেন । পাঁয়ের জুতা খুলে মারতে উদ্দ্যত হয় ।বিষয়টি খুবই দুঃখজনক ও লজ্জাজনক। বিষয়টি আমি উপজেলা নির্বাচন অফিসার লিখিত ভাবে জানিয়েছি।

এ বিষয়ে নারী অফিস সহায়ক জবেদা বেগম জানান, চেয়ারম্যান প্রার্থীর সাথে আসা লোকজন আমার পিঠে হাত দিয়েছিল। আমি সেটার প্রতিবাদ করেছি মাত্র । নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন অফিসার আব্দুস সালাম ঘটনার সত্যাতা করে বলেন, একজন ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং তাঁর কর্মী সমর্থকের সাথে একজন নারী অফিস সহায়ক যে অশোভন আচরণ করেছেন তা কাম্য নয় । আমি নিজেই হতবাক হয়েছি । এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি । উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেয়া হবে । নামপ্রকাশে অনইচ্ছুক স্থানীয় লোকজন জানান, নির্বাচন অফিসের পিয়ন জমেলা বেগমের এমন আচরণ নতুন নয় । নিজেকে জনৈক সচিবের স্ত্রী পরিচয় দিয়ে থাকেন । ইতিপূর্বে তাঁর অন্যায় কাজের প্রতিবাদ করায় তিনি নলডাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ এবং নিজ অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে কুপ্রস্তাব দেওয়া সহ নানা মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হুয়রানি করেছেন ।

ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Agrajatra 24
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102