বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আশুগঞ্জ থেকে ৫০ কেজি গাঁজা’সহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক কুমিল্লায় মাদক কারবারিদের আতংকের আরেক নাম ডিএনসি ও টাস্কফোর্স! চুনারুঘাটে জমিতে মাটি কাটায় বাধা দেওয়ায় প্রতিপক্ষের হামলা। ৩ মহিলা আহত বাগমারায় যুবদলের ফরম বিতরণ অনুষ্ঠিত বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তরুণীর অনশন রাজশাহী বাগমারা থানা পুলিশে’র পৃথক অভিযানে গ্রেপ্তার ৪ নওগাঁয় দুই দিনব্যাপী শিশু মেলার উদ্বোধন সময়ের বিবর্তনে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব আমাদের দূয়ারে, এর সঠিক ব্যবহার জরুরী গলাচিপায় মৎস্য জীবী লীগের সাংগঠনিক সভায় কমিটির রদবদল কান উৎসবে বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের ট্রেইলার উদ্বোধনে ফ্রান্সের পথে তথ্যমন্ত্রী

নিঃসঙ্গ_বৃদ্ধার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ালেন এসপি বিপ্লব কুমার সরকার

নবী-মাহমুদ
  • সংবাদটি লিখা হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ১৩ মে, ২০২১
  • ৯২ জন পড়েছে

স্টাফ রিপোর্টার:

“কচু আর পাটশাক খেয়ে রোজা রাখা মহিতনকে দিলেন ১ মাসের বাজার ও ঈদ উপহার

“বড় কষ্টে আছি বাবা। জীবন আর চলে না।” এমনটা বলে নিজের কষ্টের কথা বলছিলেন ৮১ বছর বয়সী উপজেলার গজঘণ্টা ইউনিয়নের কৈপাড়া গ্রামের মৃত জাফর আলীর স্ত্রী মহিতন (৮১)। বয়সের ভারে নুইয়ে পড়েছে। অন্যের দয়ায় চলছে তার জীবনযাপন। তিন ছেলে এক মেয়ে থাকতেও নেই।

কয়েক বছর আগে দুই ছেলে মোন্নাফ ও মনির কাজ করতো। কুমিল্লা থেকে বাড়ি আসার সময় সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যায়। আর ছোট ছেলে মতিয়ার বউ সন্তান নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে থাকে। আর মেয়েটিও থাকে অন্যের জমিতে। বাড়িতে নড়বড়ে একটি চালা। বৃষ্টি হলে পানি পড়ে। তখন বসে রাত কাটায় মহিতন। চালার চারিদিকে দেওয়া হয়েছে নেট। যাতে পানি ভিতরে না ঢুকে। ঘরে ভাঙ্গা একটা চৌকি। তাও নড়বড়ে। ছেড়া কেতা বালিশ। ঘরে মানুষ ঘোরার মতো জায়গা নেই। মাঝে মাঝে রান্না করে বাহিরে।

সীমাহীন কষ্ট মহিতনের। সরকারের মানবিক সহায়তা কিংবা ভিজিএফ এর টাকাও সে পায়নি। সীমাহীন দুঃখ-কষ্ট মহিতনের। অন্যের দয়ায় চলে মহিতনের জীবন। ইফতার ও সেহরিতে খায় মানুষের দেওয়া খাবার। মাঝে মাঝে কচুশাক ও পাট শাক তার সম্বল।

একই গ্রামের মসজিদের মোয়াজ্জিন আবুবক্কর বলেন, খুব কষ্ট তার। মানুষ যেখানে দেয় সেটাই খায়। সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য দুলাল মিয়া বলেন, টাকা দেওয়ার সময় তাকে আমি পাইনি।

দৈনিক ইত্তেফাকে এমন একটি সংবাদ চোখে পড়ে রংপুর জেলা পুলিশের সম্মানিত অভিভাবক, বাংলাদেশ পুলিশের আইকন, মানবিক পুলিশ সুপার জনাব #বিপ্লব_কুমার_সরকার বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদয়ের। পুলিশ সুপার মহোদয় নিজেই ওই বৃদ্ধা মহিলার খোজ নেন এবং তার জন্য ১ মাসের বাজার হিসেবে চাল, ডাল, লবণ, তেল, পেয়াজ, আলু, মুরগী ইত্যাদি পাঠিয়ে দেন। এছাড়া ঈদ উপলক্ষে সেমাই, চিনি, দুধ, মশলা, নতুন কাপড় ও নগদ সাহায্য দেন। রংপুর জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (এসএএফ) জনাব মোঃ আশরাফুল আলম পলাশ আজ সকালে পুলিশ সুপার মহোদয়ের পক্ষে এসকল উপহার পৌছে দেন।

পুলিশ সুপারের উপহার পেয়ে আনন্দে কেদে ফেলেন বৃদ্ধা। তিনি বলেন, দুই বেটা মরি গেছে, আরেক বেটা থাকিয়াও নাই। বেটি বেচে খাচুং। মাইনসের থাকি খুজি মিলি খাং। এসপি স্যার মোর বেটার চেয়েও বড় কাম করিল। আল্লাহ তোমাগুলাক ভালে থুক।

এসময় উপস্থিত স্থানীয় জনতা নিঃসঙ্গ এই বৃদ্ধার পাশে দাড়ানোর জন্য এসপি বিপ্লব কুমার সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Agrajatra 24
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102