শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৮:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজাপুরে পৃথক পৃথক জায়গা থেকে দুই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ…..নওগাঁয় খাদ্যমন্ত্রী রাজশাহীর হলিদাগাছিতে ৩ ফসলি জমিতে চলছে পুকুর খনন যশোরে পুরুষ সেজে মধুর প্রেমের সম্পর্কের ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব লুটে নিতো তরুণী। যশোরের চৌগাছা সীমান্ত থেকে ১৪ কেজি ৪৫০ গ্রামের ১শ’ ২৪ টি স্বর্ণের বার সহ ১জন আটক। “গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ” বিশ্ব নেতৃবৃন্দের ছয় সদস্যের একজন শেখ হাসিনা। শার্শা সীমান্তের ইছামতি নদী থেকে অজ্ঞাত এক যুবকের লাশ উদ্ধার যশোরে চোরাই মোবাইলসহ গ্রেফতার ২ লক্ষীপুর মাতৃমঙ্গল হতে বের হয়ে রাস্তায় স্বাভাবিক প্রসবে সন্তান জন্ম “বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি”

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের বিদায়ী সালের অর্জন

মোঃমনিরুজ্জামান (মনির) রংপুর ব্যুরো প্রধানঃ
  • সংবাদটি লিখা হয়েছে : বুধবার, ৬ জানুয়ারি, ২০২১
  • ১৫৪ জন পড়েছে

 

মোঃমনিরুজ্জামান (মনির)

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ, রংপুর সফলতার সাথে ২য় বছর অতিবাহিত করে ৩য় বর্ষে পদার্পণ করেছে। বুধবার (৬ ডিসেম্বর) সকালে মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের সভাকক্ষে ২০২০ সালের রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অর্জন সমূহ তুলে ধরা হয়। যা নিচে তুলে ধরা হলো

অপরাধ বিভাগঃ
গত ০১ বছরে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অপরাধ বিভাগের ৩ টি জোনের অধীন ৬ টি থানায়
মোট ১৫০৮ টি মামলা রুজু হয়েছে এবং ১৫১৩ টি (অভিযোগপত্র- ১৪১০ টি + ফাইনাল রিপোর্ট- ১০৩
টি) মামলার তদন্ত সমাপ্ত করে নিষ্পত্তি করাসহ ৩৪৭৮ জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত ০১ বছরে
৬ টি থানায় মোট ৩৮৪৭ টি জিআর ওয়ারেন্ট, ২০৬০ টি সিআর ওয়ারেন্ট ও ১৯৬৬ টি সাজা ওয়ারেন্ট
(জিআর ও সিআর) নিষ্পত্তি করা হয়েছে। এছাড়াও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও উদ্ভূত নানা ধরণের আইনগত
সমস্যা প্রতিকারের লক্ষ্যে মোট ২২৯৯ টি ঘড়হ-ঋওজ প্রসিকিউশন দাখিল করা হয়েছে। রংপুর মেট্রোপলিটন
পুলিশ এর ০৬ থানা ও গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি) কর্তৃক সর্বমোট ৫৬৭ টি মাদক সংক্রান্ত মামলা দায়ের
করা হয় এবং সর্বমোট ইয়াবা-১১,১৮৩ পিস, গাঁজা-৩৫৫.৬৬ কেজি, হিরোইন-১৯৬.৯২ গ্রাম,
ফেন্সিডিল-৭৯০ বোতল (প্রতি বোতল-৫০০ মিলি), চোলাই মদ-২৬৯ লিটার, স্পিরিট-১৮৫ লিটার, ওয়াস-
৫,৩০০ লিটার, বিদেশী মদ-১৪ লিটার মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়। যার সর্বমোট আনুমানিক মূল্য-
১,১৯,৯৪,২০০/- (এক কোটি উনিশ লক্ষ চুরানব্বই হাজার দুইশত) টাকা। চাঞ্চল্যকর মামলা/ঘটনার সংখ্যা- ১৯
টি (খুন মামলা এবং ক্লুলেস মামলার রহস্য উদঘাটন হয়েছে)। তন্মধ্যে জি¦নের বাদশা গ্রেফতার, সরকারী
ঔষুধ উদ্ধার, নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার আসামী গ্রেফতার, খুন মামলার আসামী গ্রেফতার, প্রতারক
গ্রেফতার এবং অভিনব কায়দায় বহনকৃত বিপুল পরিমানে মাদক উদ্ধার উল্লেখযোগ্য।
৬ টি থানা, ২ টি ইউনিয়ন, ৩৩টি ওয়ার্ডকে ৫৫ টি বিটে ভাগ করে বিট পুলিশিং এর মাধ্যমে
পুলিশি সেবা জনগণের দোড়গোরায় পৌঁছে দেয়ার পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। থানা ভিত্তিক কমিউনিটি
পুলিশিং এর মাধ্যমে জনগণকে পুলিশিং কার্যক্রমের সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে।

ট্রাফিক বিভাগঃ
গত এক বছরে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ, ২ টি জোনের অধীন ৪৮০১৪ টি
মামলা ও ২,২১,০৫,১৫০/- (দুই কোটি একুশ লক্ষ পাঁচ হাজার একশত পঞ্চাশ) টাকা জরিমানা আদায় করেছে।
আলোচ্য সময়ে ১৬৫৭ টি যানবাহন আটক করে আইনগত ব্যব¯’া নেয়া হয়েছে। হয়রানি রোধকল্পে
মেট্রোপলিটন পুলিশ প্রতিষ্ঠার প্রায় প্রথম থেকেই ট্রাফিক বিভাগে ই-প্রসিকিউশন (ঢ়ড়ং সধপযরহব এর
মাধ্যমে) চালু করা হয়েছে। ট্রাফিক বিভাগের জবাবদিহিতা নিশ্চিতে ট্রাফিক সদস্যদের মাঝে নড়ফু
ড়িৎহ ক্যামেরা চালু করা হয়েছে। রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকার মোটরযানে ‘রংপুর মেট্রো-০০-০০০’
রেজিস্ট্রেশন নম্বর এর শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। মহানগরীর বিভিন্ন ¯’ানের অবৈধ ¯’াপনা উ”েছদ ও ফুটপাত
দখলমুক্ত করে পার্কিং ব্যব¯’া চালু করার মাধ্যমে যানবাহন ব্যব¯’াপনায় শৃঙ্খলা নিশ্চিত করা হয়েছে যেমনঃ
মেডিক্যাল মোড়ের দীর্ঘদিনের অবৈধ বাসস্ট্যান্ডটি অন্যত্র সরিয়ে এলাকাটিকে পরি”ছন্ন ও যানজটমুক্ত
করা হয়েছে। সিটি বাজারের অননুমোদিত দোকানপাট সরিয়ে অসহনীয় যানজট নিরসন করা হয়েছে।
রংপুর মেট্রোপলিটন ট্রাফিক বিভাগ উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) এর কার্যালয়ে রংপুর
মেট্রোপলিটন এলাকার সিও বাজার হতে কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল পর্যন্ত মহাসড়ক এলাকায় ঈঈঞঠ
ঈধসবৎধ সংযোগ ¯’াপন ও পর্যবেক্ষণ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করা হয়। মহাসড়কে যানবহনের চলাচলের
সুবিধার্থে বিভিন্ন সিগন্যাল/ সতর্কতামূলক সিগন্যাল/বিলবোর্ড ¯’াপন করা হয়েছে। এছাড়াও
নগরবাসীর চলাচলের সুবিধার্থে অবৈধ ও অননুমোদিত যানবাহন নিয়ন্ত্রণে কঠোর আইনানুগ
প্রয়োগ অব্যাহত আছে।

গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)ঃ
গত এক বছরে
 গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি) কর্তৃক করোনাকালীন সময়ে রংপুর মহাগনরী ও রংপুর বিভাগের বিভিন্ন
জেলা হতে করোনা ভাইরাস নিয়ে গুজব সংক্রান্তে ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়াও সরকার কর্তৃক
প্রদত্ত অবৈধভাবে সংরক্ষণকরা টিসিবি ও ওএমএস পণ্য উদ্ধার অভিযান পরিচালনাকালে ০৭ টি নিয়মিত
মামলা ও ০৩ টি মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে সর্বমোট- সয়াবিন তেল- ১৩,৪৫৬ লিটার, চিনি-১৫৫০
কেজি, ডাল- ৫০ কেজি, চাল- ১৫৩০ কেজি এবং পেয়াজ- ২৮৮ কেজি উদ্ধার করা হয়, যার মোট মূল্যমান
প্রায় ১৫,০০,০০০/- (পঁনের লক্ষ) টাকা। উক্ত অভিযানের ০৭ টি মামলায় ২৭ জন আসামী গ্রেফতার ও ০৩
টি মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে সর্বমোট ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
 গোয়েন্দা বিভাগ কর্তৃক নকল বিøচিং পাউডার, নকল প্রসাধনী সামগ্রী (২ টি কারখানা), নকল
ধানের বীজ, প্লাস্টিক কারখানা (৩ টি কারখানা), ভেজাল সেমাই তৈরীর কারখানায় (৩ টি কারখানা),
অস্বা¯’্যকর পরিবেশে বেকারী (৫ টি কারখানা), ভেজাল তেল কারখানায়, নকল ডিটারজেন্ট কারখানা, নকল
স্যানিটাইজার, নকল ভিক্সল তৈরী কারখানায় (৪ টি কারখানা), নকল সাবান তৈরী কারখানা (২ টি

কারখানা), নকল ব্যাটারী ও ব্যাটারী কেমিক্যাল তৈরী করাখানায় (৭ টি কারখানা) উদ্ধার অভিযানসহ মোট
৭২ টি অভিযান পরিচালনা করে সর্বমোট প্রায় ৩,৫০,০০,০০০/- (তিন কোটি পঞ্চাশ লক্ষ) টাকার
মালামাল জব্দ করা হয় এবং সর্বমোট ১৬,৮৫,১০০/- (ষোল লক্ষ পঁচাশি হাজার একশত) টাকা জরিমানা করা
হয়।
 গোয়েন্দা বিভাগ কর্তৃক রংপুর মহানগরী এলাকার ২২ টি মেডিকেল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার এবং
ক্লিনিক এ অভিযান পরিচালনা করে সর্বমোট ৬,৯০,০০০/- টাকা জরিমানা করা হয় এবং ভুয়া ডাক্তার
গ্রেফতার করা হয়।
 এছাড়াও মেডিকেল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার এবং ক্লিনিক এ অভিযান চালিয়ে প্রায় ১২০ জন দালাল
চক্রের সদস্য গ্রেফতার করা হয়, বিআরটিএ/ পাসপোর্ট অফিস এ অভিযান চালিয়ে প্রায় ৩৫ জন
দালাল চক্রের সদস্য গ্রেফতার করা হয় এবং সর্বোমোট ১৮০ জন মাদক সেবী গ্রেফতার করা হয়।

অন্যান্যঃ
স্মরণকালের ভয়াবহ মহামারী করোনা ভাইরাস সৃষ্ট কোভিড-১৯ মোকাবেলায় ১০ লক্ষাধিক মাস্ক,
জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে লক্ষাধিক লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। মহামারী মোকাবেলায় ত্রাণ হিসেবে নিম্ন
আয়ের মানুষের মধ্যে খাদ্য দ্রব্য, স্বা¯’্যবিধান সামগ্রী (হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান, জীবানুনাশক)
বিতরণ করা হয়েছে। মেট্রোপলিটন পুলিশের ওয়াটার ক্যানন ব্যবহার করে মেট্রোপলিটন এলাকায়
জীবানুনাশক স্প্রে করা হয়েছে। এতিম শিশু ও দু¯’ মানুষদের পুষ্টিকর খাবারের ব্যব¯’া করা হয়েছে।
সুবিধা বঞ্চিত মানুষকে সহযোগিতার বিষয়টি টেকসই রূপ দেয়ার জন্য মেট্রোপলিটন পুলিশ
কমিশনারের দূরদর্শী ভাবনার প্রতিফলন হিসেবে তাঁর প্রত্যক্ষ তত্ত¡াবধানে “মানবতার বন্ধনে রংপুর” নামক
সংগঠন সৃষ্টির মাধ্যমে দুঃ¯’ মানুষদের মাঝে খাবার ও শীতবস্ত্র বিতরণসহ নানাবিধ কার্যক্রম চলমান
রয়েছে।
বছরব্যাপী মাদকের বিরুদ্ধে সভা-সমাবেশ চলমান রেখে জনগণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির
বিভিন্ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। গাছের চারা রোপন, বিদ্যালয়ের জলাবদ্ধতা নিরসন, দীর্ঘদিন থেকে অবরদ্ধ
রাস্তা জনগণের জন্য অবমুক্তকরণ, নিরাপদ খাবার পানি (নলকূপ ¯’াপন) সরবারহসহ বিভিন্ন সামাজিক
কার্যক্রম জোড়ালোভাবে নিয়মিত চলমান রয়েছে।
জঙ্গীবাদ রোধে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ সদা তৎপর। আরপিএমপির তৎপরতায় সাড়াশি অভিযানের
মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে নাশকতার সাথে সম্পৃক্তদেরকে গ্রেফতার এবং ব্যাপক জিহাদী বই এবং সরকার
বিরোধী ব্যানার ফেস্টুন ইত্যাদি উদ্ধার করা হয়।

ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Agrajatra 24
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102