শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৭:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজাপুরে পৃথক পৃথক জায়গা থেকে দুই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ…..নওগাঁয় খাদ্যমন্ত্রী রাজশাহীর হলিদাগাছিতে ৩ ফসলি জমিতে চলছে পুকুর খনন যশোরে পুরুষ সেজে মধুর প্রেমের সম্পর্কের ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব লুটে নিতো তরুণী। যশোরের চৌগাছা সীমান্ত থেকে ১৪ কেজি ৪৫০ গ্রামের ১শ’ ২৪ টি স্বর্ণের বার সহ ১জন আটক। “গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ” বিশ্ব নেতৃবৃন্দের ছয় সদস্যের একজন শেখ হাসিনা। শার্শা সীমান্তের ইছামতি নদী থেকে অজ্ঞাত এক যুবকের লাশ উদ্ধার যশোরে চোরাই মোবাইলসহ গ্রেফতার ২ লক্ষীপুর মাতৃমঙ্গল হতে বের হয়ে রাস্তায় স্বাভাবিক প্রসবে সন্তান জন্ম “বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি”

রাজমিস্ত্রীর সাথে পালিয়ে গেল একই ঘরের দুই গৃহবধূ

Coder Boss
  • সংবাদটি লিখা হয়েছে : বুধবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১১৯ জন পড়েছে

মোহাম্মদ নূরণবী
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বালির নিশ্চিন্দায় ২ রাজমিস্ত্রীর হাত ধরে ২ গৃহবধূর ঘর ছাড়ার ঘটনায় এলাকা জুড়ে হৈ-হুল্লোড় সৃষ্টি হয়েছিল। পুলিশি তদন্তে উঠে এসেছে, ওই ২ বধূর সাথে যে রাজমিস্ত্রিদের ঘনিষ্ঠতা গড়ে উঠেছে তা আঁচ করতে পেরেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারাও। রাজমিস্ত্রিদের কিনে দেওয়া ফোনেই যোগাযোগ রাখতেন গৃহবধূরা। অবশেষে কলকাতার বালি থেকে নিখোঁজ ওই দুই গৃহবধূর সন্ধান পেল পুলিশ। বুধবার ভোরে আসানসোল স্টেশন থেকে সন্তানসহ নিখোঁজ দুই গৃহবধূ এবং তাদের দুই প্রেমিককে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিশ্চিন্দার আনন্দনগরে কর্মকার পরিবারের বাড়িটির কাজ এখনো পরিপূর্ণ ভাবে শেষ হয়নি। তবে দোতলা বাড়িটির প্রাথমিক নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে ৬ মাস আগে। তার আগে দীর্ঘদিন ওই বাড়ির নির্মাণে যুক্ত ছিলেন ২ রাজমিস্ত্রি সুভাষ ও শেখর। মুর্শিদাবাদের সুতির বাসিন্দা সুভাষের সঙ্গে প্রথমে বড় বউ অনন্যা কর্মকারের প্রণয়ের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে অনন্যার কাছে ব্যক্তিগত কোনো মোবাইল ফোন ছিল না। তাই বাড়ি ছাড়ার আগে তাকে একটি মোবাইল ফোন কিনে দিয়ে যান ওই যুবক। সেই মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই প্রেমিকার সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন ওই রাজমিস্ত্রি। এরপর ধীরে ধীরে আরেক রাজমিস্ত্রি শেখরের সঙ্গে ছোট বউ রিয়ারও সম্পর্ক বুনে যায়।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, রাজমিস্ত্রিদের সঙ্গে একাধিকবার এলাকায় ঘোরাফেরা করতে দেখা যায় ২ বধূকে, যা নিয়ে স্থানীয়দের মনে বিষয়টিএকটু জটিল সংখ্যার মতো লেগেছিল। ২ বধূ নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার পর দু’হাত দু’হাত চার হাতে দ’জোড়া করছেন তারা। গত ১৫ ডিসেম্বর শীতের পোশাক কিনতে শ্রীরামপুর যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন অনন্যা ও রিয়া। সঙ্গে ছিল রিয়ার ৭ বছরের ছেলে আয়ুষ। তারপর থেকে তাদের খোঁজ পাননি পরিবারের সদস্যরা। অনন্যার কাছে ছিল একমাত্র মোবাইল ফোনটি। বিকালে সেটি বন্ধ হয়ে যায়। রাতে নিশ্চিন্দা থানায় কর্মকার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয়। পরে অনন্যার মোবাইল ফোনের কললিস্ট পরীক্ষা করে সুভাষের নম্বর পাওয়া যায়।

ঘটনা তদন্তে সুতিতে সুভাষের বাড়িতে হানা দেয় পুলিশ। কিন্তু পরিবারের পক্ষ থেকে জানা যায়, ১৬ ডিসেম্বর মুম্বাইয়ের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন তারা।

পুলিশ জানিয়েছে, দুই রাজমিস্ত্রির সঙ্গে মুম্বাই পালিয়েছিলেন গৃহবধূরা, কিন্তু হাতে পর্যাপ্ত টাকা না থাকায় সেখানে গিয়ে অর্থকষ্টে পড়েন। তারা মুম্বাই থেকে এ রাজ্যে ফিরছেন, পুলিশ অপেক্ষাও করছিল আসানসোল স্টেশনে।

বুধবার ভোরে দুই বধূ এবং তাদের প্রেমিকরা নামতেই তাদের আটক করে পুলিশ। তারপর দুপুরে তাদের ফিরিয়ে নিয়ে এসেছেন নিশ্চিন্দা থানার পুলিশ।

ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Agrajatra 24
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102