1. admin@agrajatra24.com : Agrajatra 24 :
  2. Ashrafalifaruki030@gmail.com : আশরাফ আলী ফারুকী : আশরাফ আলী ফারুকী
  3. editor@agrajatra.com : News :
রাজাপুরের ধানসিড়িঁ নদীর পূর্বপাড়ের ইটের রাস্তাটি দুই যুগেও হয়নি সংষ্কার - Agrajatra24.com
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পাইকগাছায় কৃষকদেরর মাঝে বিনামূল্যে বীজধান ও সার বিতরণ উদ্ধোধন স্বামীর ঘরেই অবরুদ্ধ জীবন কাটাচ্ছেন স্ত্রী কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসকের বদলীজনিত বিদায়ী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত কুলিয়ারচরে বিএনপি’র ২০ নেতাকর্মীর নামসহ ৭০ জনের নামে বিস্ফোরক আইনে মামলা চট্টগ্রামের মহাসমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাঃ ২৯ টি প্রকল্পের উদ্বোধন রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিল প্রার্থী অজিহার রহমান জনপ্রিয়তার শীর্ষে বিএনপির স্বপ্ন কখনো পূরণ হবে নাঃ বাগমারা’য় খায়রুজ্জামান লিটন ঝালকাঠিতে নও মুসলিমের উপরে হামলা বাঁশখালী থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ফের ৪৫০০ পিস ইয়াবা সহ গ্রেফতার ৩ জন চট্টগ্রাম সিটি রেডক্রিসেন্ট ইউঃ’র নির্বাচন-ব্যাপক অনিয়ম-অবৈধ তাহেরপুর কলেজে নবাগত অধ্যক্ষ যোগদানে সংবর্ধনা ও পরিচিতি সভা বাকেরগঞ্জে ভরপাশা ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে শহিদুল সভাপতি রঞ্জু সম্পাদক পাইকগাছা মসজিদ ও কবরস্থানের জমি দখল উপরন্তু মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ পাইকগাছায় নানা আয়োজনে আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস পালিত সুন্দরগঞ্জ পূর্ব শত্রুতার জেরে বসতবাড়িতে অগ্নিসংযোগের অভিযোগ অগ্রযাত্রায় সংবাদ প্রকাশের পর ভোলা থেকে জ্বীনের বাদশাকে আটক করলো র‍্যাব-৮ র‍্যাব-৮ এর অভিযানে ভোলা থেকে জ্বীনের বাদশা আটক সুন্দরগঞ্জে বিজয় দিবসে কর্মসূচী গ্রহণে আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভা করিমগঞ্জে বিএনপি’র সাথে পুলিশের সংঘর্ষ, ৩ পুলিশ সদস্য আহত জেলা কৃষকলীগের সম্মেলন সফল করতে বাগমারা’য় যুবলীগের প্রচার মিছিল

রাজাপুরের ধানসিড়িঁ নদীর পূর্বপাড়ের ইটের রাস্তাটি দুই যুগেও হয়নি সংষ্কার

  • সংবাদটি লিখা হয়েছে : মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ১৮১ জন পড়েছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ নবীন মাহমুদ
ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার ধানসিঁড়ি নদীর পূর্বপাড়ের অবহেলিত একটি গ্রামের নাম পশ্চিম চর ইন্দ্রপাশা। এ গ্রামে অধিকাংশ দরিদ্র, দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষদের আশ্রয়ে সরকার গুচ্ছগ্রাম, আবাসন ও ভুমিহীন পরিবারকে বসবাসের জন্য এরশাদ সরকারের আমলে জমি ও পরবর্তীতে গুচ্ছগ্রাম, আবাসনে ঘর বরাদ্দ দেয়া হয়। পরে প্রায় ২ যুগ আগে পশ্চিম ইন্দ্রপাশা-ভূমিহীন-গুচ্ছগ্রাম এলাকায় ধানসিঁড়ি নদীর পূর্বপাড় থেকে প্রায় ৩ কি.মি দীর্ঘ মাটির রাস্তাটিতে ইট দিয়ে ইটের রাস্তা নির্মান করা হয়। কিন্তু বর্ষা ও বন্যায় রাস্তাটির বিভিন্ন এলাকা তলিয়ে রাস্তা ভেঙে যায়। ভূমিহীনের উত্তর প্রান্তের কালর্ভাটিও ভেঙে নিশ্চিহ্ন হয়ে যায় এবং গুচ্ছ গ্রাম এলাকার ধানসিঁড়ি শাখা খালের ব্রীজের গোড়ায় মাটি না থাকায় যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া ইটের এ রাস্তাটির বিভিন্ন স্থানের ইট ভেঙে সড়ে গিয়ে একেবারে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, ৩ কি.মি. দীর্ঘ ইট সলিং রাস্তাটি সংস্কার না হওয়ায় অসংখ্য খানা খন্দের কারণে যানবাহন ও মানুষের চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে ফলে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। রাস্তায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, মঠবাড়ী ইউনিয়নের চর ইন্দ্রপাশা গ্রামের এ রাস্তাটি দিয়ে হাসপাতাল, স্কুল, কলেজ, ব্যাংক, বীমা, পোস্ট আফিস, ইউনিয়ন পরিষদ, থানা, বিভিন্ন এনজিও অফিসসহ গুরত্বপূর্ণ অফিসে যাতায়াতে করে এ এলাকাবাসী । রাস্তাটি ভাঙাচুড়া হওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে কয়েক হাজার পথচারি ও সাধারন মানুষকে। দীর্ঘদিন ধরে রিক্সা-ভ্যান চলাচল বন্ধ থাকায় বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে বৃদ্ধ রোগী ও শিশু শিক্ষার্থীসহ মালামাল বহনকারীরা। বাগড়ি বাজার সংলগ্ন চর ইন্দ্রপাশা ব্রীজ থেকে উত্তর দিকে ভূমিহীন, গুচ্ছগ্রাম ও আশ্রয়ন কেন্দ্র রাস্তাটিতে অটোরিকশা, মোটর সাইকেল ও ভ্যানসহ সকল যানবাহন চলাচল কয়েক বছর ধরে বন্ধ। সামান্য বৃষ্টিতে রাস্তার অবস্থা আরো ভংঙ্কর হয়ে পরে। এ রাস্তাটিতে ১টি ব্রীজ ও ২টি কালভার্ট রয়েছে। ব্রীজের দুই পাশের রাস্তার ইট ও মাটি সড়ে গিয়েছে। কালভাট ভেঙে যাওয়ায় চলাচল বন্ধ। স্থানীয়দের অভিযোগ, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মানের মালামাল দিয়ে কালভার্ট নির্মাণ করায় তা ভেঙে গেছে। স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহম্মেদ খান দুঃখ প্রকাশ করে জানান, রাস্তা বেহালের কারণে অটোরিকশাসহ কোন প্রকার যানবাহন চলে না। দীর্ঘ কয়েক বছরে সংষ্কার না হওয়া ও অবহেলায় এবং কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টির অভাবে সড়কটির এমন দশা। কলেজ শিক্ষার্থী রফিকুল ইসলাম শান্ত জানান, অসুস্থ রোগী দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যেতে তাদের চরম ভোগান্তিতে পরতে হয়। রাস্তা খারাপের কারণে কোনো গাড়ী বা অ্যাম্বুলেন্স ডুকে না এ রাস্তায়। রাস্তার ইট উঠে খানাখন্দে ভরে গেছে। অনেকাংশে রাস্তার ইটের কোনও অস্তিত্ব নেই সব বিলীন হয়ে গেছে। সংস্কারের অভাবে রাস্তাগুলোর অন্তত ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ স্থান বেহাল অবস্থায় রয়েছে। এ গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটির দ্রæত সংষ্কারে কতুৃপক্ষের সহযোগিতা চেয়েছেন। মঠবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল সিকদার জানান, সড়কটি ইতোমধ্যে জেলা উন্নয়ন প্রকল্পে তালিকাভূক্ত করা হয়েছে। রাস্তাটি দ্রুত সংষ্কার হওয়া দরকার। রাস্তাটি বেহাল হওয়ার কারনে দীর্ঘদিন ধরে মানুষ ভোগন্তি পোহাচ্ছে, আশা করি দ্রুত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ রাস্তাটি সংষ্কার করবে। রাজাপুর উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা ও সার্ভেয়ার সুমন হোসেন জানান, খোজঁখবর নিয়ে জেলা উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে রাস্তাটি দ্রুত সংষ্কার করা হবে।

ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Agrajatra 24
Design & Develop BY Coder Boss