শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৮:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রাজাপুরে পৃথক পৃথক জায়গা থেকে দুই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ নিরাপদ…..নওগাঁয় খাদ্যমন্ত্রী রাজশাহীর হলিদাগাছিতে ৩ ফসলি জমিতে চলছে পুকুর খনন যশোরে পুরুষ সেজে মধুর প্রেমের সম্পর্কের ফাঁদে ফেলে সর্বস্ব লুটে নিতো তরুণী। যশোরের চৌগাছা সীমান্ত থেকে ১৪ কেজি ৪৫০ গ্রামের ১শ’ ২৪ টি স্বর্ণের বার সহ ১জন আটক। “গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ” বিশ্ব নেতৃবৃন্দের ছয় সদস্যের একজন শেখ হাসিনা। শার্শা সীমান্তের ইছামতি নদী থেকে অজ্ঞাত এক যুবকের লাশ উদ্ধার যশোরে চোরাই মোবাইলসহ গ্রেফতার ২ লক্ষীপুর মাতৃমঙ্গল হতে বের হয়ে রাস্তায় স্বাভাবিক প্রসবে সন্তান জন্ম “বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি”

সময়োপযোগী বিনোদনের অভাবে পথভ্রষ্ট হচ্ছে যুবক-যুবতীরা পর্ব-১

Coder Boss
  • সংবাদটি লিখা হয়েছে : বৃহস্পতিবার, ৫ মে, ২০২২
  • ৬৯ জন পড়েছে

রিয়া (ছদ্মনাম) জেলার একটি সরকারি কলেজের ইন্টারমিডিয়েট পড়ুয়া ছাত্রী। তার বাড়ি সীমান্তবর্তী একটি উপজেলায়। পড়াশোনার খাতিরে জেলা সদরেই একটি ভাড়া বাড়িতে থাকে সে। তার বাবা জব্বার মিয়া (ছদ্মনাম) একজন মুদি দোকানী। জব্বার মিয়ার একমাত্র মেয়ে রিয়াকে নিয়েই তার সব আশা-ভরসা। তাই রোজগারের বড় একটা অংশ রিয়ার শহরে থাকা আর পড়াশোনার পেছনেই খরচ করেন তিনি। তবুও মেয়েকে মানুষের মত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে চান তিনি।

অন্যদিকে রিয়াকে তার বাবা যা খরচ পাঠান তা দিয়ে তার হয় না। বড়লোক বান্ধবীদের সাথে পাল্লা দিয়ে চলাফেরা করতে গিয়ে প্রায়শই হোঁচট খেতে হয় তাকে। এনিয়ে যখন তার মন খারাপ থাকে সে তার কবির(ছদ্মনাম) ভাই এর কাছে যায়। কবির ভাই জেলার বড়মাপের নেতা, তার কাছেই আজকাল বেশী আসে রিয়া। কারন, কবির ভাই এর কাছে কোন কিছু চেয়ে না শুনেনি রিয়া।

তার হাতের দামি ফোন থেকে শুরু করে পরনের পোশাক-আশাকও আজকাল সেই কিনে দেয় রিয়াকে। বিনিময়ে কবির ভাই আর তার বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে মাঝেমধ্যে আড্ডা দেয় রিয়া। রাত-বিরেতে আড্ডা দিয়েও যে টাকা কামানো যায় রিয়া একথা আগে শুনেছে, এখন তা বাস্তবে দেখছে সে। জীবনকে উপভোগ করা আর তার সাথে টাকাও কামানো এর মাঝে খারাপ কি সে বুঝে না আবার অনেক সময় বুঝতে গিয়েও বুঝেনা। উঠতি যৌবনের এসময়ে পথহারা পথিকের মত এলোমেলো বিচরণ তার কাছে ভালোই লাগে।

যতসব সমস্যা মিলিকে নিয়ে। মিলি হলো রিয়ার ক্লাসমেট ও রুমমেট। মিলি মাঝেমধ্যেই রিয়ার রাতবিরেতে ঘরে ফেরা নিয়ে আপত্তি তুলে আবার কোথাও ট্যুরে গেলেও আপত্তি তুলে। অথচ মিলিও তার জীবনকে উপভোগ করতে পারে চাইলেই, একথা মিলির মাথায় যে কেন আসেনা তা রিয়া বুঝেনা।

আসলে মিলি যে একেবারে গেঁয়ো মেয়ে তাও না, যথেষ্ট আধুনিক ও মিশুক স্বভাবের একটা মেয়ে। আর পড়াশোনাতেও মেধাবী। গরীব বাবা-মায়ের ঘরে জন্মনিলেও একটা আত্মতৃপ্তি কাজ করে তার মাঝে সবসময়ই, যেটা রিয়ার মাঝে নেই।

যাহোক, আজ রিয়ার মন খারাপ। কারনটা সে মিলির সাথে শেয়ার করবে কিনা তা ভাবছে। আবার মিলির লম্বা বয়ান আর নীতি কথা শুনতে হবে এই ভেবে চুপই রইলো রিয়া। কিন্তু একটা অস্থিরতা কাজ করছে তার ভিতর, আজকে তার সাথে ঘটে যাওয়া বিসয়টগুলো মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলতেও পারছেনা সে। এমন সময়ই ঘরে মিলি ঢুকলো। প্রতিদিন বিকেলেই মিলির টিউশন থাকে। সপ্তাহে তিনদিন নিজে ছাত্র আর তিনদিন শিক্ষক। শুক্রবারে মিলিকে পাওয়া দায়, সেদিন তার ছুটি।

চলবে…

লেখকঃ আসাদুজ্জামান তালুকদার, ফ্রীল্যান্স সাংবাদিক

ফেসবুকে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ধরনের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 Agrajatra 24
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102